Home ব্যবসায়িক পরামর্শ প্লাস্টিক পুনর্ব্যবহারযোগ্য মেশিন
প্লাস্টিক পুনর্ব্যবহারযোগ্য মেশিন

প্লাস্টিক পুনর্ব্যবহারযোগ্য মেশিন

by Tandava Krishna

কিভাবে প্লাস্টিক পুনর্ব্যাবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা করা যায়

প্লাস্টিক বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ পদার্থ যা আমাদের প্রতিদিনের জিবনে অঙ্গাঙ্গিক ভাবে জরিয়ে গেছে। সামান্য আলপিন থেকে শুরু করে গাড়ি পর্জন্ত সবই বর্তমানে আসে একটি প্লাস্টিকের মোড়কে। তাই এটি বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যাবহ্রিত উপাদান গুলির মধ্যে একটি। তবে এই উপাদানটি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সমস্যাগুলির মধ্যেও একটি। এই সমস্যাটি বর্তমানে এতই বেড়ে চলেছে যে তার সাথে তাল মিলিয়ে তার সমাধান করাই একটা কঠিন বিষয়ে হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সমস্যা সমাধানের উপায় যদিও একটি আছে। তা হল প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরন। তবে এই প্রক্রিয়াটি সরল হলেও এই প্রক্রিয়া ব্যাবহারকারিদের সংখ্যা খুবই কম।

এই কারনেই বর্তমানে বহু ব্যাবসায়ি এবং উদ্যোক্তারা তাদের নতুন ব্যাবসার সূচনাকালে প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা শুরু করার কথা ভাবছেন। আমরা আগেই জানিয়েছি যে যত পরিমানে প্লাস্টিক ব্যাবহার হয় তার তুলনায় প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবস্থা অনেকই কম। তাই আপনি যদি এই ব্যাবসা শুরু করতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন, তবে আপনি এই ব্যাবসায় অর্থ উপার্জন করার সুযোগও যেমন পাবেন, তেমনই পাবেন এই পৃথিবীকে দুষণের হাত থেকে রক্ষা করার সুযোগ। তবে এই ব্যাবসা শুরু করার আগে আপনি কিভাবে এই ব্যাবসা শুরু করতে পারেন সেই সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য জেনে নিতে হবে। এই তথ্য না জানলে আপনি এই ব্যাবসা শুরু করতে বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তাই আসুন আমরা আর সময় নস্ট না করে জেনে নিই এই তথ্যগুলি সম্পর্কে যাতে আপনি সহজেই বুঝতে পারেন যে কি কি পদক্ষেপ নিলে আপনি এই ব্যাবসা শুরু করতে পারেন।

বাজার সমীক্ষা

যেকোনো ব্যাবসার ক্ষেত্রেই ব্যাবসা শুরু করা বাজারের সমীক্ষা করা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। তবে প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসার কাজ খুবই প্রয়োজনীয়। কারনেই ব্যাবসাটি খুব নতুন ধরনের একটি ব্যাবসা, তাই এই ব্যাবসা নিয়ে আগে থেকে খুব বেশি কোন সমীক্ষা করা নেই। তাই আপনার কাছে সমীক্ষার পরোক্ষ উপায়টি অনুপস্থিত। কারন পরোক্ষ উপায়ে আপনি অন্যের করা সমীক্ষা থেকে বিভিন্ন তথ্য এবং সাহায্য পেয়ে থাকেন। তবে আগে থেকে কোন সমীক্ষা না থাকায় এই কাজ অসম্ভব। তাই আপনি এই ব্যাবসা শুরু করার আগে যা সমীক্ষা করতে চান তার পুরোটাই আপনাকে সরাসরি করতে হয়। অর্থাৎ আপনাকে সরাসরি বাজারে নেমে বাজারের অন্যান বিক্রেতা এবং ক্রেতাদের থেকে তাদের মতামত জেনে নিতে হয়। এইভাবে আপনি প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা শুরু করলে কি কি সুবিধা ও অসুবিধার সম্মুখীন হতে পারেন সেই সম্পর্কে বিস্তারিত অনেক তথ্য জানতে পারবেন।

ব্যাবসায়িক পরিকল্পনা গঠন

ব্যাবসায়িক পরিকল্পনাকে কোন ব্যাবসার ভিত্তিপ্রস্তর মনে করা হয়। তার কারন হল এই যে আপনার ব্যাবসায়িক পরিকল্পনা যদি সঠিক না হয়, তবে আপনি ব্যাবসায় উনতি করার ক্ষেত্রে বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তাই আপনার বাজারের সমীক্ষা সম্পন্ন হলেই আপনার উচিত যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রাপ্ত তথ্যগুলিকে বিশ্লেসন করা, এবং সেই বিশ্লেসিত তথ্য ব্যাবহার করে আপনার ব্যাবসায়িক পরিকল্পনা তৈরি করা। আপনার এই পরিকল্পনা তৈরির এই কাজ শেষ হলেই আপনি এই ব্যাবসার পরবর্তি কাজকর্মের দিকে অগ্রসর হতে পারেন। 

অর্থসংস্থান

আপনার ব্যাবসায়িক পরিকল্পনা শেষ হলেই আপনি জানতে পারবেন যে আপনার এই ব্যাবসা শুরু করতে কত পরিমান মূল্ধনের প্রয়োজন। আর অর্থ জেহেতু ব্যাবসার মূল প্রান্সক্তি, তাই সেই পরিমান মূলধন আপনাকে সবার আগে সংগ্রহ করতে হবে। আপনি এই কাজ নিজের সঞ্চিত অর্থ দিয়ে করতে পারে, কোন বন্ধু বা আত্মীয়ের সাহায্য নিতে পারেন, অথবা প্রয়োজনীয় অর্থ ঋণ নিতে পারেন। যে উপায়েই আপনি অর্থসংস্থান করুন না কেন, সেই অর্থ আপনার ব্যাবসার কাজেই আসবে। তাই আগে এই কাজ আগে সম্পন্ন করা আপনার এবং আপনার ব্যাবসার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

স্থান নির্বাচন

আপনার ব্যাবসার সুচনার একদম প্রাথমিক পর্বের প্রস্তুতি এখন শেষ হয়েছে। এরপর আপনি ব্যাবসায়িক কাজকর্ম শুরু করার জন্য যে সমস্ত উপাদান প্রয়োজন সেইগুলি জোগাড় করার ব্যাবস্থা আস্তে আস্তে করতে পারেন। আর এই উপাদানগুলির মধ্যে সবার আগে যেটি প্রয়োজন তা হল একটি নির্দিস্ট জায়গা, যেখানে আপনার ব্যাবসার মূল কর্মকান্ড পরিচালনা করতে পারবেন। তাই আপনার ব্যাবসার পরিকল্পনা গঠনের কাজ শেষ হলে আপনার উচিত আগে আপনার ব্যাবসার জন্য একটি এমন স্থান নির্বাচন করা উচিত যা আপনার ব্যাবসায়িক কাজের জন্য সুবিধাজনক হবে। এর পাশাপাশি আপনাকে এই ব্যাবস্থাও করতে হবে যাতে সেই নির্দিস্ট স্থান আপনি নিজের কাজ শুরু করতে পারেন। অর্থাৎ স্থান নির্বাচনের পর সেই স্থান ক্রয় করা বা ভাড়া নেওয়ার ব্যাবস্থা করতে হবে। আপনি যদি নিজের পূর্বাধিকৃত জমি ব্যাবহার করতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন, তবে আপনি তাও করতে পারেন।

লাইসেন্সের ব্যাবস্থা

যেকোনো ব্যাবসা শুরু করার আগে আপনার সেই ব্যাবসা সংক্রান্ত লাইসেন্সের প্রয়োজন। আর প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরন ব্যাবসার জন্যো এই কাজ বাধ্যতামুলক। তাই আপনার ব্যাবসার প্রস্তুতি পর্বের কাজ সেস হলেই যত শীঘ্র সম্ভব আপনাকে লাইসেন্সের ব্যাবস্থা করতে হবে। তা না হলে আপনার ব্যাবসা সরকারের অনুমোদন পাবেন না। এবং তা হলে আপনার ব্যাবসায়িক কাজকর্ম পরিচালনা করতে বিশেষ অসুবিধা।

যন্ত্রপাতি ও অন্যান সরঞ্জাম

প্রতিটি ব্যাবসা শুরু করার জন্য কোন না কোন ধরনের সরঞ্জাম বা জন্ত্রপাতির প্রয়োজন হয়। আর এই প্রয়োজন ব্যাবসার উদ্যোক্তা হিসেবে আপনাকেই মেটাতে হবে। তাই লাইসেন্সের ব্যাবস্থা করার কাজ শেষ হয়ে গেলেই আপনার উচিত হবে এই বিষয়ে গবেষণা করা যে আপনার এই ব্যাবসার জন্য কি কি যন্ত্রপাতি লাগবে। আর এরপর সেই গবেষণা থেকে প্রাপ্ত তথ্যগুলির ভিত্তিতে আপনাকে সেই সমস্ত যন্ত্রপাতি ক্রয়ের ব্যাবস্থা করতে হবে। আপনাকে দেখতে হবে যে আপনি এই যন্ত্রপাতি কোথা থেকে সবচেয়ে কম দামে অথচ আপনার যন্ত্রপাতিগুলি সর্বোচ্চ মানের হবে। আপনি যদি এরকম কোন ব্যাবসায়ি বা ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সন্ধান করতে পারেন, তবে আপনি নিজের ব্যাবসার প্রাথমিক খরচ অনেক কমিয়ে ফেলতে পারেন। 

প্রচার

ব্যাবসায়িক কাজকর্মের ক্ষেত্রে প্রচার খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কারন প্রচার যত বেশি হবে, তত বেশি মানুষ আপনার ব্যাবসার ব্যাপারে অবগত হবেন। আর তা হলেই এই সকল মানুষের মধ্যে থেকে এমন কিছু ক্রেতা বেরিয়ে আসবেন যারা ভবিষ্যতে নিয়মিত আপনার পরিষেবা গ্রহন করবেন এবং আপনাকে অর্থ উপার্জনের সুযোগ করে দেবেন। তাই আপনি যখন প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা শুরু করতে যাবেন, তখন আপনারও উচিত হবে ব্যাবসার প্রচার করা। অতিরিক্ত প্লাস্টিকের সমস্যার সমাধানের কোন উপায় অধিকাংশ মানুষের কাছেই বর্তমানে নেই। তাই সামান্য প্রচারের মাধ্যমে আপনি যদি এই বার্তা তাদের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন যে আপনি প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা শুরু করছেন, তবে আপনি খুব সহজেই বহু সম্ভাব্য ক্রেতার দৃষ্টি আকর্ষন করতে পারবেন।

এতক্ষন ধরে আমরা এই বিষয়ে আলোচনা করছিলাম যে কিভাবে প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা করা যায়। আমরা আপনাকে অত্যন্ত সাধারণ একটি প্রক্রিয়ার কথা বলেছি। এই প্রক্রিয়াটি সহজ একদমই নয়। তবে এইপ্রক্রিয়াতি এমন ভাবে তৈরি যে সামান্য পরিস্রম করলে যে কেউ এই প্রক্রিয়াটিকে মেনে চলতে পারে। তাই আপনি যদি নিজের প্লাস্টিক পূনর্ব্যবহারযোগ্যকরনের ব্যাবসা শুরু করতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন তবে আপনিও ব্যাবসার এই প্রক্রিয়াত মেনে চলতে পারেন। আবার আপনি এই ব্যাবসা শুরু করার জন্য পরিকল্পনা গঠনের সময় এই প্রক্রিয়াটিতে থেকে প্রয়োজনীয় সাহায্যও নিতে পারেন। দুটি পথের যেকোনো একটি বেছে নিলেই আপনি এই ব্যাবসায় বিশেষ উন্নতি করতে পারবেন এবং প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাই আর দেরি না করে এখন থেকেই প্রস্তুতি শুরু করুন। এরপর সঠিক সময়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে আপনার ব্যাবসা শুরু করতে পারবেন।

Related Posts

Leave a Comment