Home ব্যবসায়িক পরামর্শ কিভাবে আটা চকী মেশিন বিক্রয় করবেন
কিভাবে আটা চকী মেশিন বিক্রয় করবেন

কিভাবে আটা চকী মেশিন বিক্রয় করবেন

by Tandava Krishna

আটা চাক্কি মেশিনের প্রকারভেদ এবং কিভাবে সেগুলো অনলাইন বিক্রয় করা যায় ?

কায়িক পরিশ্রম কমানোর জন্যে কত রকম মেশিনের রোজ আবিষ্কার হচ্ছে তার কোনো ইয়ত্তা নেই  আগেকার দিনে গম গুঁড়ো করে তার থেকে আটা পাওয়ার জন্যে যে হাতে তৈরী মেশিন ব্যবহার করা হতো এখন সেগুলোর অস্তিত্ব নেই বলেই ধরা যায় এখন সব কিছুতেই ইলেকট্রিসিটি ব্যবহার করে মোটর ঘুড়িয়ে বেশি উৎপাদন করার ব্যবস্থা যাতে মানুষ কম সময়ে বেশি লাভ করতে পারেআটা চাক্কি মেশিন বাজারে অনেকরকম আকারে এবং দামে পাওয়া যায়বাণিজ্যিক এবং পারিবারিক আটা চাক্কি মেশিন কখনোই এক রকম হতে পারে নামোটরের আকার, বল বেয়ারিংশ এর সঃখ্যা, মেশিন পোর্টেবল কিনা, টেকনোলজির প্রকারভেদ, সাধারণ ভোল্টেজে চলবে কিনা, সিঙ্গেল ফেজ না ডবল ফেজ এসবের ওপর নির্ভর করে মেশিনের দাম কার্যকারিতা নির্ধারণ করা হয়এখন আমরা দেখবো কতরকম আটা চাক্কি মেশিন পাওয়া যায় এবং কিভাবে সেগুলো অনলাইন বিক্রয় করা যায়

কয়েক প্রকার আটা চাক্কি মেশিনের নাম ও প্রকারভেদ – 

স্টোনলেস আটা চাক্কি মেশিন

এটি একটি বদ্ধ ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেটা দিয়ে কঠিন জিনিসকে গুঁড়ো করা হয়বিভিন্ন রকম মসলাও এই মেশিন দিয়ে গুঁড়ো করা যায় সুন্দর ডাস্টের মতো আটা এবং মসলা পাওয়া যায়হপার এর মতো একটা পাত্র আছে যেখান দিয়ে মসলা বা আটা ঢালা হয় যেটা গুঁড়ো করার চেম্বারে জমা হয় ব্লেন্ডার মেশিনের সাহায্যে গুঁড়ো হয় এবং নির্দিষ্ট জায়গা থেকে স্মুথ গুঁড়ো হয়ে বেরিয়ে আসে

স্টোন আটা চাক্কি মেশিন

এটা একটা খোলা আটা চাক্কি মেশিন ব্যাবসায়িক ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।  এই মেসিনটাকে নড়াচড়া করা যায় নাএই বেডস্টোন তার ওপর রানার স্টোন তা অবস্থিত এটার সাহায্যেই গুঁড়ো করা যায়।  পুরোনো যে হস্তচালিত মেশিন ছিল এটা তারই পরিবর্তিত রূপসহজ এবং সিম্পল এই মাসিনটি সবারই ব্যবহারের উপযুক্ত

সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় আটা চাক্কি মেশিন

এই মেশিনটিতে তোমাকে শুধু যে পরিমান এটা গুঁড়ো হবে সেটা দিতে হবে এটা নিজে থেকেই সব কাজ করে কোনো কিছু ঘোরানোর দরকার নেই।  সব শেষে তুমি এই মেশিন তার ব্যবহার যোগ্যতার প্রমান পাবে। 

ঐতিজ্যবাহী আটা চাক্কি মেশিন 

এটা আমরা অনেকেই পুরোনো দিনের জিনিসের মধ্যে দেখেছি।  এগুলো এখনো প্রচলিতও  আছেকিছু মানুষ এগুলো এখনো ব্যবহার করে সেই ঐতিহ্য কে বহন করার জন্যেতবে এতে প্রচুর সময় কায়িক পরিশ্রম প্রয়োজন।  এটা  সম্পূর্ণ খোলা এবং যে আটা পাওয়া যায় তাও খুব মসৃন নয়

কি কি দেখে একজনের কোনো আটা চাক্কি মেশিন কেনা উচিত

যে কোনো জিনিস কেনার আগেই সেই জিনিসটা সম্পর্কে কিচু জেনে নেয়া উচিত।  তোমার প্রয়োজনকে সেটা ঠিক ভাবে পরিপূর্ণ করছে কিনা তোমাকেই দেখতে হবে।  কেনার পর সেটা দেখলে তোমার প্রয়োজন ঠিক মতো মিলছে না তখন মনে হবে তোমার টাকা আর টাইম টাই জলে গেলো।  

স্থায়ীত্ব 

যে কোনো আটা চাক্কি মেশিন কতদিন লাস্টিং করবে সেটা কেনার আগে তোমাকে দেখে নিতে হবে।  তবে একটু দামি আটা চাক্কি মেশিনের ক্ষেত্রে এই সময় টা মোটামোটি ১০ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত হতে পারে।  ছোট কম দামি মেশিন গুলো ঠিকভাবে ব্যবহারবিধি পালন করলে বছর নিচিন্তে চালানো যায়।  

পরিষ্কার করার পদ্ধতি 

ব্যবহার করার পর সব মেশিন কেই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে রাখতে হয়।  জীবাণু মুক্ত এবং টাটকা জিনিস খাবার পাওয়ার জন্যে যাতে আটা চাক্কি মেশিন সহজে পরিষ্কার করা যায় সেদিকে সতর্ক থাকতে হবেপরিষ্কার করার জন্যে যদি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার এর ব্যবহার করতে হয় তাতে খরচ এবং পরিশ্রম টিই  বাড়বে।   

বাচ্ছাদের হাত থেকে রক্ষা করার বৈশিষ্ট 

যদি তোমার বাড়িতে বাচ্চা থাকে তাহলে এই দিকে তো তোমাকে খেয়াল রাখতেই হবে।  মেশিন চালানোর সময় যেন সব পার্ট ভালো ভাবে ঢেকে থাকে এদিকে সাবধান হতে হবে।  

বিদ্যুতের পরিমান 

সাধারণত আটা চাক্কি মেশিন তিন ধরণের হয়ে থাকে হস্তচালিত, মোটরচালিত এবং মিশ্রিত ধরণেরম্যানুয়াল মেশিনে কারেন্ট কসাম্পশন  না লাগলেও সময় এবং পরিশ্রম ২টি লাগেমিশ্রিত ধরণের মেশিনটি দুটি ধাপেই কাজ করতে পারেযখন তোমার যেমন সুবিধা হস্তচালিত বা মোটরচালিত দুটি পদ্ধতি তেই ব্যবহার করতে পারবে।  

 

মোটরের স্পিড এবং গ্রাইন্ডারের ব্লেড 

যদি গ্রাইন্ডারের ব্লেড এবং প্লেট গুলো সুগঠিত হয় মেশিনটাও দীর্ঘদিন পর্যন্ত ভালোভাবে চলেকম সময়ে বেশি আটা পাওয়ার জন্যে মোটরের স্পিড এবং গ্রাইন্ডারের গঠন ভালো হতে হবেতাই যখন কিনবে ভালো মানের জিনিস কেনাই তোমার জন্যে উপকার হবে।  

গ্যারান্টী বহনযোগ্যতা 

যে কোনো আটা চাক্কি মেশিনের একটা গ্যারান্টী পিরিয়ড থাকে।  দামের সাথে সেটা অনেকসময় ডিপেন্ড করেতাছাড়াও কি দিয়ে মেশিন টা তৈরী , দিনে কতক্ষন ব্যবহার করা যাবে বা কত পরিমান আটা পেষাই করা যাবে সব ব্যাপারগুলোই দেখে এই গ্যারান্টী পিরিয়ড টাকে স্থির করা হয়একটা নির্দিষ্ট জায়গায় আটা চাক্কি মেশিনটাকে ফিক্সড করে দিলে অনেকসময়ই সেটা অসুবিধা হতে পারে।  তাই তুমি কেনার আগে সেটা দেখে নাও বহনযোগ্য কিনানিচে চাকা ফিক্সড করার কোনো ব্যবস্থা আছে কিনা তাহলে সেটা সবজায়গায় ব্যবহার করা যাবে আর সমস্যা মুক্তও হবে।  

অনলাইনে বিক্রয় করার পদ্ধতি

  • সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে কোনো জিনিস বিক্রি করা সব থেকে সুবিধাজনক প্রসেসসেই লিস্টে ফেসবুক থেকে শুরু করে, ইনস্টাগ্রাম সবই আছেআর অনলাইন  মার্কেটিং সাইটগুলো তোমাকে সাহায্য করতে পারে  তবে এক্ষেত্রে তোমাকে একাউন্ট তৈরী করার জন্যে কিছু  টাকা দিতে হবে। 
  • ইউটিউব থেকে বিজ্ঞাপন দেয়া এখন খুব ভালো একটা পদ্ধতি একটা চ্যানেল ওপেন করে তোমার প্রোডাক্টের ডিটেলস দিয়ে সেখানে ভিডিও তৈরী করো  তারপর সেখান থেকে সব বন্ধু বা তোমার চেনাশোনা সবাইকে পাঠাও  এভাবে খানিকটা মাৰ্কেটিংও হয়ে যাবে আর সেখান থেকে তোমার ব্যবসা শুরুও হতে পারে
  • তুমি যেখানে থাকো সেখানে বিভিন্ন রকম অ্যাড দিতে পারো মানুষ যাতে সেটা দেখতে পারেদুর্দান্ত অফার দিতে পারো সেখান থেকে লোকেরা তোমার প্রোডাক্টের প্রতি ইন্টারেস্ট দেখাবে

উপসংহার

আটা চাক্কি মেশিন এমন একটি মেশিন যেটা ছোট আকারের থেকে বড়ো আকারের ওপরেই বেশি চাহিদা  যেহুতু বাড়িতে আটা গুঁড়ো করার থেকে দোকান থেকেই মানুষ গুঁড়ো আটা কেনে তাই তুমি যদি বিক্রেতা হও কাস্টমাররা তোমার কাছে একটা অল্প টাইমের যাতে বেশি পরিমান আটা মিহি ভাবে গুঁড়ো করা যায় তারই খোঁজ করবে  অনলাইন সেলিং এর ক্ষেত্রে তুমি বাড়িতে মেশিন গুলো এরেঞ্জ করতে পারো বা কোনো ডিলারশিপের  সাথে কথা বলে অর্ডার পাওয়ার পর সেটা ডেলিভারিও করতে পারো  তাতে তোমার বাড়িতে দীর্ঘদিন সেটা ফেলে রাখতে হবে না আবার মেইনটেন্যান্স খরচও সেভ হবে সাথে সাথে মডার্ন এবং সব থেকে লেটেস্ট জিনিসটাও পাওয়া যাবে বিক্রি শুরু করার আগে আটা চাক্কি মেশিনের ব্যাপারে সব ডিটেলস জানতে হবে যাতে কাস্টমারদের সব রকম উত্তর দিতে পারো  তবে কোনো প্রোডাক্টের দাম ফিক্সড করার আগে সেটা বাকি কোম্পানি গুলি কি দামে বিক্রি করছে তার একটা সম্যক জ্ঞান নিয়ে রাখো  তোমার জিনিস গুলো বিক্রি করতে এই ট্রিকস টা সাহায্য করবে  অনলাইন মাৰ্কেটটিং খুবই জনপ্রিয় ব্যবসা কিন্তু কম্পেটিশনও ভীষণ বেশি আগে নিত্য নতুন অফারের সাহায্যে তোমার কাস্টমারদের বোঝাতে হবে তুমি সঠিক দামে সঠিক জিনিস বিক্রি করছো  একবার এই বিশ্বাস তা করে নিতে পারলেই তোমার ব্যবসা খুব শীঘ্রই সাফল্যের মুখ দেখবে

Related Posts

Leave a Comment